মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
পাতা

প্রখ্যাত ব্যক্তিত্ব

নাম : স্বর্গীয়-ক্যজাই প্রু চৌধুরী (কে,পি,চৌধুরী)

পিতা- স্বর্গীয়- মুইচাই চৌধুরী

মাতা- স্বর্গীয়- সুইবুংমা চৌধুরী,

জনম-১০/০৬/১৯৩১খ্রি:

জনমস্থান- ডাবুয়া চাবুনছড়ি(হেডম্যানপাড়া),

শিক্ষাগত যোগ্যতা-৮ম শ্রেণী পাস-১৯৪৬খ্রি:।

রাঙ্গামাটি সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়।

১৯৫৬ সালে সহকারী হেডম্যান হিসেবে ৮৭নং ডাবুয়া মৌজা।

১৯৬৩ সালে পিতার মৃত্যুর পর ৮৭নং ডাবুয়া মৌজার হেডম্যান নিয়োজিত হয়।

১৯৬৭ সালে ডাবুয়া হেডম্যানপাড়া প্রাথমিক বিদ্যালয় স্থাপনের জন্য ভুমি দান ও বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠিত করেন। ১৯৬৭ সাল হইতে ১৯৮৭ সাল ২১শে এপ্রিল পর্যমত্ম ডাবুয়া হেডম্যানপাড়া প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পরিচালনা কমিটির প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি হিসাবে দায়িতব পালন করেছেন।

১৯৭১ সালে স্বাধীনতার সংগ্রামের সময় শরনার্থীদেরকে আশ্রয়াণ ও মুক্তিযোদ্ধাদেরকে আর্থিক ও খাদ্য,বাসস্থানসহ বিভিন্নভাবে সাহায্য-সহযোগিতা করেন।

১৯৭২সাল হইতে ১৯৮৫ সাল পর্যমত্ম ডাবুয়া মৌজা এলাকার গরীব এবং অসহায় লোকদেরকে বৌদ্ধ ধর্মীয় মতে প্রত্যেক বছর পাঁচ/দশজন লোকদেরকে শ্রমণ প্রজ্বা নেওয়ার আর্থিক এবং বিভিন্নভাবে সাহায্য সহযোগিতা করতেন।  

১৯৭৩ সালে বাক্কুর পাড়ার বৌদ্ধ বিহার স্থাপনের জন্য আর্থিক এবং কায়িকভাবে সাহায্য সহযোগিতা করেছেন।

১৯৭৪ সালে ধুপছড়ি বাজার স্থাপনে উদ্যোগ নেন।

১৯৭৫ সাল হইতে ১৯৮৭ সাল পর্যমত্ম পলস্নী চিকিৎসক হিসেবে পাহাড়ী দুর্গম প্রত্যমত্ম অঞ্চলে সর্বসাধারণকে চিকিৎসা সেবা দান করেছেন।

১৯৭৫ সালে ১৪ই জুন বেতবুনিয়া ভু-উপগ্রহ কেন্দ্র উদ্ভোধনের অনুষ্ঠানে ডাবুয়া মৌজা হেডম্যান হিসাবে প্রয়াত জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমানের সাথে সাক্ষাত করেন।

১৯৭৬ সালে ডাবুয়া হেডম্যানপাড়া বৌদ্ধ বিহার পূর্ণ নির্মাণে প্রতিষ্ঠিত হিসাবে অগ্র ভুমিকা পালন করেন।

১৯৮০ সালে ধুপছড়ি পাড়ার বৌদ্ধ বিহার স্থাপনের জন্য আর্থিক এবং কায়িকভাবে সাহায্য সহযোগিতা করেছেন।

১৯৮২ সালে ডাবুয়া বাজার স্থাপনের জন্য উদ্যোগ গ্রহন করেন।

১৯৮৪ সালে ৮৭নং ডাবুয়া মৌজার ০৫(পাঁচ)জন কার্বারী নিয়োগের জন্য মাননীয় জেলা প্রশাসক বরাবরে নামের তালিকা প্রেরণ করেন।

১৯৮৭ সালে ২১শে এপ্রিল জেএসএস(শান্তি বাহিনী) কর্তৃক আততায়ীর হাতে নির্মমভাবে শহীদ হন।তাঁর মৃত্যুকালে ৪(চার)পুত্র,আর ৮(আট) কন্যা সন্তান অনেক গুনগ্রাহী রেখে যান। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল- ৫৭ বছর। বর্তমানে ০১। ডাবুয়া কেপি চৌধুরী নামে একটি বাজার। ২। ডাবুয়া কেপি চৌধুরী প্রাথমিক বিদ্যালয়, এবং কেপি চৌধুরী স্মৃতি মন্দির প্রতিষ্ঠিত করা হয়।